বাতাসে ২০ মিনিট থাকলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণক্ষমতা ৯০ শতাংশ কমে যায়। করোনাভাইরাস তার বেশির ভাগ সংক্রমণক্ষমতা প্রথম ৫ মিনিটের মধ্যেই হারায়। এক গবেষণায় এসব তথ্য উঠে এসেছে বলে জানায় দ্য গার্ডিয়ান।

করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহার করার কথা বারবার বলে আসছেন বিজ্ঞানীরা। বিভিন্ন দেশের সরকারও করোনা-সংক্রান্ত সচেতনতামূলক প্রচারাভিযানে সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরার ওপর জোর দিয়ে আসছে। সর্বশেষ এই গবেষণার ফলও সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক ব৵বহারের গুরুত্ব নতুন করে তুলে ধরল।

গবেষণা দলটির প্রধান অধ্যাপক জোনাথন রিড। তিনি যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ব্রিস্টলের অ্যারোসল রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক।

 

রিড বলেন, তিনি মনে করেন, করোনা বায়ুর মাধ্যমে ছড়ায়। সে ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি তখনই বেশি হবে, যখন কেউ সংক্রমিত ব্যক্তির কাছে যাবেন। সংক্রমিত ব্যক্তি থেকে যত দূরে সরে যাওয়া যাবে, তত নিরাপদ থাকা যাবে। কারণ, সময়ের ব্যবধানে করোনা তার সংক্রমণের ক্ষমতা হারায়।

বাতাসে করোনাভাইরাসের টিকে থাকা নিয়ে এখন পর্যন্ত একাধিক গবেষণা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণায় দেখা গেছে, তিন ঘণ্টা পরও বাতাসে সংক্রামক ভাইরাস শনাক্ত হয়।

সূত্র :প্রথম আলো ডেস্ক