শিক্ষার্থীদের পাঠাভ্যাস তৈরি ও তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তুলতে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় আজমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব ও শাহনুর খাতুন মডেল লাইব্রেরির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এ উপলক্ষে গত শনিবার সকালে আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল ও উদ্বোধক হিসেবে অনলাইনে যুক্ত হন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় আজমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব ও শাহনুর খাতুন মডেল লাইব্রেরির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় আজমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব ও শাহনুর খাতুন মডেল লাইব্রেরির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে

মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল আরেফিনের সভাপতিত্বে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জায়েদুর রহমান, মিরপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জুলফিকার হায়দার, আমলা সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ কামাল আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মর্জিনা খাতুন, সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম, বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি রবিউল হক, প্রধান শিক্ষক আ স ম পারভেজ।

 

মুহম্মদ নূরুল হুদা বলেন, ‘এই প্রত্যন্ত এলাকার একটি স্কুলে এ রকম একটি মডেল লাইব্রেরির উদ্যোগ বাংলাদেশের একটি প্রতীকী লাইব্রেরি হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে বলে আমার বিশ্বাস।’ তিনি আরও বলেন, একটি লাইব্রেরি, যেখানে বৈচিত্র্যময় গ্রন্থের সংগ্রহ থাকে, সেখানে পৃথিবীর সর্বকালের সব ধরনের অভিজ্ঞতা, বিদ্যা, জ্ঞান ও আবিষ্কারের সারাংশ সংরক্ষিত থাকে। একটি লাইব্রেরির অতল সমুদ্রে ডুবে থাকে জাতীয় জীবনের বহুবিধ শাখার দিকনির্ণয়ের সব উপকরণ। মানুষের পরিচয় শুধু তাঁর বর্তমান মুহূর্তকে ঘিরে নয়, তাঁর পরিচয় তাঁর অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ সম্পর্কে চিন্তাভাবনাকে নিয়ে। এ লাইব্রেরির উদ্যোক্তা নাজমুল হুদা ঠিক তাঁর শিকড়কে মনে রেখেছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আহমেদ জামাল বলেন, এখন অনেকেই বই পড়েন না। কম্পিউটার, ল্যাপটপ, স্মার্টফোনে অনেক তরুণকে পড়তে দেখা যায়। তবু বইয়ের কোনো বিকল্প নেই।
সভাপতির বক্তব্যে মিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল আরেফিন বলেন, নাজমুল হুদা একসময় থাকবেন না অথচ আজকের এই মডেল লাইব্রেরি থাকবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপপরিচালক ও মডেল লাইব্রেরির উদ্যোক্তা নাজমুল হুদা বলেন, ‘এই বিদ্যালয়ে পড়াকালে ২২ বছর আগে লাইব্রেরি থেকে দুটো বই নিয়েছিলাম পড়ার জন্য, আর ফেরত দেওয়া হয়নি। এত দিন পর সেই দায়বদ্ধতা থেকে আমি সেই স্কুলে নিজের মায়ের নামে এ মডেল লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করে দিলাম, যাতে সবাই পাঠে উদ্বুদ্ধ হয়ে ওঠে।’
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, অভিভাবক, স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।